প্রশিক্ষণ

নতুন ব্যবসায়ীদের ৫০ লাখ টাকা ঋণ সুবিধা / Loan facility



পড়ালেখা শেষ করে আমরা যারা চাকরির জন্য হন্নে হয়ে ঘুড়ে বেড়াচ্ছি, আমরা একটা বিষয় একটু চিন্তা করলেই বুঝতে পারবো যে আমাদের দেশে চাকরির বাজারটা অনেক ছোট কারন ব্যাবসায়ীরাই তো আমাদের চাকরি দিবে তাদের অফিসে, এখন তাদেরতো যে কয়জন কর্মচারী লাগবে , তা তো তাদের আছেই, আর মাঝে মাঝে যাওবা একটা দুটো পোস্ট খালি হয় তা তো উচ্চ শিক্ষিত বেকার দ্বারা পূর্ণ হয়ে যায় এখন আমাদের মতো মধ্যম মানের ছাত্রদের কি হবে ?? ব্যাবসায়ী তো বাড়ছে না। সবাই চাকুরী করবে , আরে ভাই চাকুরী দেবে টা কে ?? চাকুরী দাতা তো এখন তৈরী হচ্ছে না , আমরা শিক্ষিতরা বসে আছে কেও একটা চাকরী দেবে, কে দিবে , সেই মানুষটা তো ব্যবসা না করে আমার আপনার মতো চাকরী খুজে বেড়াচ্ছে, এখন কি উপায় ? উপায় সরকার বাতলে দিয়েছে, সরকারী খরচএ সরকার আপনাকে সব কিছুর ট্রেনিং দেওযাবে, তারপর আপনার ব্যাবসায়িক পরিকল্পনার উপরে সর্বোচ্চ ৫০,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত স্বল্প সুদে লোন / Loan facility দিবে, আবার আপনি যেন লসে পড়ে না যান তার জন্য আপনার পণ্যের বাজারজাত করণে দেশে ও বিদেশের বিভিন্ন মেলায় অংশগ্রহণ এর সুযোগ করে দিবে। এর পরে আপনি নিজেই কিছু চাকরী খুজে বেড়ানো বেকার ভাই বোনদের কাজের সুযোগ করে দিলেন। তাই আর কোনো ভাই এর দিকে তাকিয়ে না থেকে নিজেই চুপচাপ সিন্ধান্তটা নিয়ে নিন।



যারা চাকরি করতে চান না অথবা যারা সৎ পথে অনেক ধনী হতে চান, তারাই ব্যবসা করতে চায়


বাংলাদেশ ক্ষুদ্র  কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক)

শিক্ষিত বা কম শিক্ষিত উদ্যোক্তাদের, বাংলাদেশ সরকার এর উদ্যোগে প্রশিক্ষণ ও আর্থিক সহায়তা / Loan facility দিবে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক)।


প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটি উত্তরা ও বিসিক এর প্রধান কার্যালয়, মতিঝিলে অবস্থিত। এই প্রতিষ্ঠানটি প্রায় সারা বছরই বিভিন্ন কোর্স এ ব্যবসায়ীদের জন্য বিভিন্ন কোর্স পরিচালনা করে, সাথে বিভিন্ন ধরনের আর্থিক সাহায্য এবং পণ্য বাজারজাতকরণে সহায়তা প্রদান করে।

কোর্সের যোগ্যতা

কোর্সের যোগ্যতা খুব বেশি কিছু লাগছে না। এসএসসি পাস হলেই এখানে আপনি একটি কোর্স সম্পাদন করতে পারবেন। যারা নতুন ব্যবসায়ী অথবা কেবল শুরু করবেন, সকলে এখান থেকে প্রশিক্ষণ নিতে পারবেন।


নির্বাচনী সাক্ষাৎকার

বিসিকের নির্দিষ্ট ফরম রয়েছে, সেই ফরমটি পূরণ করে আবেদন করতে হবে। নির্বাচনী সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হবে, সেখানে অংশ নিতে হবে। নারী-পুরুষ উভয়ে এখানে অংশগ্রহণ করতে পারবে। নারীদেরকে এখানে প্রাধান্য দেয়া হয়।


কোর্সসমূহ

কোর্স সমূহ হল বিপণন ব্যবস্থাপনা, সাধারণ ব্যবস্থাপনা, শিল্প ব্যবস্থাপনা, আর্থিক ব্যবস্থাপনা, শিল্প উদ্যোক্তা ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি। এই প্রশিক্ষণ গুলো মূলত উত্তরা থেকে পরিচালিত হয়। মতিঝিল এর প্রধান কার্যালয়ে আরো কিছু বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ দেয়া হয়, যেমন:- পাটজাত পণ্য, হস্তশিল্প, মৃৎশিল্প, ধাতব শিল্প, স্কিন প্রিন্ট, পুতুল তৈরি, বাঁশ বেতের কাজ, কাঠের কাজ, প্যাকেজিং, বুনন শিল্প, চামড়াজাত পণ্য ইত্যাদি।




কোর্সের মেয়াদ

এখানে প্রতিটি কোর্সের মেয়াদ তিন মাস।


প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

ঢাকা ছাড়াও দেশের বহু স্থানে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রয়েছে।


বাজারজাত

বিসিক থেকে যারা প্রশিক্ষণ নিয়ে বের হবে তাদের উৎপাদিত পণ্য নিয়ে বিসিক বছরে চারবার প্রদর্শনীর আয়োজন করে। প্রদর্শনী করা ছাড়াও, কিভাবে বাজারজাত করতে হবে তার প্রশিক্ষণ তো আছেই।


আর্থিক সুবিধা

বিসিকের সাথে বিভিন্ন ব্যাংকের ঋণ সহায়তা চুক্তি রয়েছে। এই চুক্তির অধীনে ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ সহায়তা পাওয়া যেতে পারে। তাছাড়াও দেশের প্রায় সকল ব্যাংকে বিসিক থেকে প্রশিক্ষণ সম্পন্ন কারীদেরকে জামানত ছাড়াই ঋণ প্রদান করে। মহিলা উদ্যোক্তারা সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ সুদে ঋণ পেতে পারে।

যোগাযোগ
বিসিক ভবন, প্রধান কার্যালয়, মতিঝিল
বিসিক নকশা কেন্দ্র,মতিঝিল
উত্তরা, প্লট নাম্বার ২৪/এ, রোড ১৩/এ, সেক্টর ৬

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button