দরকারী তথ্য

ট্রেড লাইসেন্স করার নিয়ম

বৈধ ব্যবসার শুরু করার জন্য সরকার থেকে একটি অনুমতি নিতে হয় যার নাম ট্রেড লাইসেন্স। ট্রেড লাইসেন্স ছাড়া ব্যবসা শুরু করা ঠিক বৈধ হয় না। তা ছাড়াও ব্যাবসায়িক ব্যাঙ্ক একাউন্ট ও ব্যাঙ্ক লোনও পেতে গেলেও ট্রেড লাইসেন্স প্রয়োজন হয়। যদিও ট্রেড লাইসেন্স করা খুব সহজ, তবুও অনেকে ঝামেলা মনে করে। তাহলে আসুন জেনে নেই ব্যবসার ট্রেড লাইসেন্স কিভাবে করবো।

বেশি কথা না বাড়িয়ে শুরুতেই জেনে নেই ট্রেড লাইসেন্স করতে কি কি সাথে করে নিয়ে যেতে হবে:-

ট্রেড লাইসেন্স করতে যা যা লাগে:

১) তিন কপি পার্সপোর্ট সাইজ ছবি

২) যদি ব্যাবসায় অংশীদার থাকে তবে প্রত্যেকেরই তিন কপি করে ছবি লাগবে

৩) প্রত্যেকের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি

৪) যে দোকান বা বাসায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে তার বাড়িওয়ালার সাথে করা চুক্তি পত্রের ফটোকপি। তবে অবশ্যই সেই চুক্তিপত্রে ওই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাম থাকতে হবে

৫) ১ কপি ইউটিলিটি বিলের কপি যার মাধ্যমে ঠিকানাটি আরো ভালো মতন নিশ্চিত হওয়া যায়। অনেক ক্ষেত্রে সার্ভিস চার্জ এর ফটোকপি দিলেও হয়।

কোথায় যাবো ট্রেড লাইসেন্স করার জন্য:

আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা যদি শহরে হয়ে থাকে তবে সিটি কর্পোরেশন অফিসে যেতে হবে (উত্তর সিটি কর্পোরেশন/দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন)। পৌরসভা এলাকায় পৌর কতৃপক্ষ এর অফিসে। আর গ্রামে ইউনিয়ন পরিষদ অফিসে ট্রেড লাইসেন্স করা যাবে।

কত খরচ হতে পারে ?

আসলে ব্যাবসার ধরণ বুঝে সরকারি খরচ কমবেশি হয়ে থাকে। আপনি সরাসরি অফিস থেকে খরচের সরকারি তালিকা দেখে জানতে পারেন। আবার ইন্টারনেট থেকে গুগল সার্চ করে ওই এলাকার সরকারি খরচ কত জেনে নিতে পারেন। সাধরণত প্রত্যেক এলাকাতেই কিছু প্রতিষ্ঠান আছে যারা সামান্য কিছু টাকার বিনিমিয়ে ট্রেড লাইসেন্স এর কাজ করে থাকে। ঝামেলা মনে হলে তাদের সাথেও যোগাযোগ করতে পারেন। আবার সময় থাকলে নিজে সরাসরি অফিসে গিয়ে লাইসেন্স এর কাজ সম্পর্ণ করতে পারেন। তবে অফিসে অবশ্যই ট্রেড লাইসেন্স এর কাজ যে রুমে হয় সরাসরি সেই রুমে যেয়ে কথা বলাই ভালো। এখন অনেক কিছু ডিজিটাল হয়ে গেছে, তাই কিছুটা সহজেই ট্রেড লাইসেন্স এর কাজ শেষ করতে পারবেন আসা করি।

মেয়াদ কতদিন

ট্রেড লাইসেন্স এর মেয়াদ এক অর্থ বছর হয়ে থাকে। মেয়াদ যখন শেষ হয়ে যাবে আপনি আবারো সেই অফিসে যেয়ে নবায়ন করে নিতে পারবেন।

কোম্পানী রেজিস্ট্রেশন ট্রেড লাইসেন্স দুটির পার্থক্য:

কোম্পানী রেজিস্ট্রেশন হলো একটু বড় পরিসরে ব্যাবসার জন্য অর্থাৎ কোম্পানী রেজিস্ট্রেশন সারা বাংলাদেশের জন্য। অন্য দিকে ট্রেড লাইসেন্স যে কোনো ধরণের ব্যবসার জন্য করতে হবে। অর্থাৎ সব ছোট ও বড় ব্যাবসায়ীকেই প্রথমে ট্রেড লাইসেন্স করতে হয়।

 

ব্যবসায়ীদের ঋণ সুবিধা

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button