Uncategorizedবাংলাদেশ

Export Import Business in Bangladesh with Bolivia – Part-1




বলিভিয়া একটি ব্যাপক সম্ভাবনাময় দেশ। যেখানে বাণিজ্যের সুযোগ ধীরে ধীরে সৃষ্টি হচ্ছে। নিম্নের আলোচনা থেকে ওই দেশের ব্যাবসা বাণিজ্য, অর্থনীতি ও জীবন সম্পর্কের একটা স্বচ্ছ ধারণা পাবেন, যা আপনার বাংলাদেশ থেকে Export import business কে সুরক্ষিত করবে।
এটি দক্ষিণ আমেরিকার একটি দেশ। উদীয়মান বাণিজ্য ও অন্যান্য দেশ থেকে একটু পিছিয়ে পড়া জাতী। এর আয়তন ১,০৯৮,৫৮০ কিলোমিটার, সুতরাং এটি একটি বৃহৎ দেশ হিসাবে বিবেচনা করা যেতে পারে।
জনসংখ্যা ১১,৫১৩,১০০ যা বলিভিয়াকে ১৯৬ টি দেশের ভেতর ৮১ নম্বরে রেখেছে। প্রতি কিলোমিটারে পনেরো জনেরও কম বাসিন্দা। এর রাজধানী সুক্রে এবং এর মুদ্রা বলিভিওনোস।

অর্থনীতি

জিডিপি-র পরিমাণ অনুসারে বলিভিয়া ৯৩ তম অর্থনীতি।
মাথাপিছু জিডিপি জীবনধারণের মানদণ্ডেও খুব ভাল সূচক।
বলিভিয়ার সরকারী খাতের দুর্নীতি সূচকের ক্ষেত্রে, এটি ২৯ পয়েন্ট হয়েছে, সুতরাং, তাদের দেশে দুর্নীতির পরিমান খুব বেশি।

জনসংখ্যা ও অবস্থা

ঐতিহাসিকভাবে, বলিভিয়া মূলত গ্রামীণ, এর বেশিরভাগ কেচুয়া- এবং আইমারা। দ্রুত বর্ধমান নগর কেন্দ্রগুলির মধ্যে রয়েছে কোচাবাম্বা, সান্তা ক্রুজ এবং লা পাজ এল এল্টো, যা জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশের বেশি। প্রতি বর্গমাইলে পনেরো জনেরও কম ঘনত্বে মানুষ বসবাস করে।




জনসংখ্যা

৫৫% আমেরিকার প্রথম বসতি স্থাপনকারীদের সভ্যতার বংশধর এবং ৩০% মেস্তিজো। বাকী জনসংখ্যা সাদা, মূলত স্প্যানিয়ার্ডের বংশধর।

শিক্ষা

৬ থেকে ১৪ বছর বয়সের শিশুদের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা সম্পূর্ণ ফ্রি, তবে সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর ভেতর পড়াশুনা করার প্রবণতা কম; ফলস্বরূপ, বলিভিয়ায় প্রায় ২৫% নিরক্ষরতা রয়েছে। সারা দেশে ১০ টি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। ভাবছেন এই সকল বিষয় আলোচনা কেন করছি, তার কারণ আপনি যখন Export import business শুরু করবেন তখন ওই দেশের সকল বিষয়য়ের উপর একটি স্বচ্ছ ধারণা থাকা দরকার।

সংস্কৃতি

পোষাক, ভাষা, আর্কিটেকচার, সংগীত এবং জীবনযাত্রার মতো বলিভিয়ার বিস্তৃত লোকজ শৈলীর সাথে আমেরিকার প্রাচীন বাসিন্দাদের সংস্কৃতি দ্বারা প্রভাবিত। যা দিন দিন পরিবর্তন হয়েছে এবং ঐতিহ্যের সাথে মিশে গেছে।

স্বাস্থ্য

বলিভিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা খুব খারাপ। ১৯৮০ এর দশকে প্রতি ১৬০০ জন বাসিন্দার জন্য একজন ডাক্তার ছিলেন, শিশু মৃত্যুর হার দক্ষিণ আমেরিকার ভেতর এই দেশ অন্যতম। ম্যালেরিয়া, আমাশয় এবং যক্ষ্মা এ দেশের সাধারণ রোগ। সম্প্রতি হলুদ জ্বরের গুরুতর প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। গ্রামীণ অঞ্চলে চিকিত্সা সেবা এবং হাসপাতালগুলি বিশেষত অপর্যাপ্ত। এটিতে একটি স্বাস্থ্য প্রোগ্রাম রয়েছে, যা এ পর্যন্ত কাজের প্রকৃত চাহিদার অর্ধেকেরও কম অংশ জুড়ে।

খোলা বাজার

বলিভিয়ায় চারটি অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি রয়েছে। বাণিজ্য-জনিত গড় শুল্কের হার ৯.২ শতাংশ, এবং চারটি নোটারি ব্যবস্থা কার্যকর রয়েছে। সরকার বৈদেশিক বিনিয়োগের চেয়ে দেশীয় বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয়। ২০২০ সালে, তরলতা বাড়াতে পেনশন তহবিল থেকে বন্ড কিনে কেন্দ্রীয় ব্যাংক, ব্যাংকিং খাতে ৫০০ মিলিয়নেরও বেশি যুক্ত করেছিল।

খাদ্য

প্রচুর তাজা শাকসব্জী এবং গরুর মাংস, মুরগী বা শুয়োরের মাংস সব থেকে বেশি খাওয়া হয়। অনুষ্ঠান বা উৎসবে মজাদার সকল খাবার এর আয়োজন থাকে।



বাণিজ্যিক

টেলিভিশন সেট, রেডিও, সিডি প্লেয়ার, গাড়ি, মোটরসাইকেল এবং সাইকেলের মতো অনেক ভোগ্যপণ্য আংশিকভাবে বিক্রি হয়। বেশিরভাগ ভোক্তা পণ্য খোলা বাজারে কেনা বেচা হয়।

বলিভিয়া রফতানি করে (Export Business)

রফতানির মধ্যে জল, জ্বালানী পণ্য তেল এবং গাছ অন্যতম, যে সকল গুরুত্বপূর্ণ কৃষিজাত পণ্য উৎপাদন করে তার মধ্যে কাঠের পণ্য, সয়াবিন ও সয়াবিন তেল, এছাড়াও কফি আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিলে রফতানি হয়।

বলিভিয়া আমদানি করে (Import Business)

বলিভিয়া কমপেন খাবার আমদানি করে (গম, চাল, কর্ন, কুইনো, কোকো, আপেল, কলা, ম্যান্ডারিন, আনারস, পিচ, আঙ্গুর, পেঁয়াজ, টমেটো, শিম ও আলু) তথ্য কণিকা কলিভান: ইনষ্টিটি ফরেন ট্রেড (আইবিসিই) এর ক্যাপিটালস। বাংলাদেশ থেকে ব্যবসার জন্য এই সকল বিষয়ের উপর নজর দিতে পারেন।




উপরোক্ত আলোচনা থেকে আপনি একটি ধারণা পাবেন যে বলিভিয়াতে কি ধরণের Export Import Business করা যায়। অথবা আদৌ Export Import Business নিয়ে চিন্তা ভাবনা করা যাই কিনা। এছাড়াও পরবর্তীতে এ সংক্রান্ত আরো দুটি আর্টিকেল পাবলিশড হবে, তা পড়ে দেখতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button